মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব

 

 

 

 

 

 

বীর বিক্রম ইউ. কে. চিং

 

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ বাংলাদেশের ইতিহাসের এক স্মরণীয় অধ্যায়। বাংলাদেশের আপামর জনগণ এক হয়ে এই যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। পরাধীন দেশকে স্বাধীন করার ব্রত নিয়ে যাঁরা এই যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিরেন তাঁদের একজন ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপজাতী ইউ. কে. চিং।

 

বিভিন্ন সংগ্রামে আমরা যেমন বিজয় ছিনিয়ে এনেছি তেমনি অনেক ক্ষেত্রে পরাজয়ের গ্লানিও স্বীকার করেছে। সেসব পরাজয়কে আমরা বিজয়ে পরিণত করতে পেরেছি ১৯৭১ সালে এক রক্তসাগর পাড়ি দিয়ে। আর সেই রক্তস্নাত ইতিহাসের একজন সৈনিক এবং জীবন্ত সাক্ষী উপজাতীয় মুক্তিযোদ্ধা ইউ. কে. চিং।

 

 

অসম সাহসী ছিলেন এই উপজাতী মুক্তিযোদ্ধা। ইপিআর-এর একজন সদস্য হিসাবে তাঁর বাঙালী ভাইদের সঙ্গে কাঁধে কাঁদ মিলিয়ে তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। যুদ্ধ করেন ৮ নং সেক্টরে। বারংবার সম্মুখসমরে অবস্থান নিয়ে যু্দ্ধে অংশ নেয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকার তাঁকে ‌‌''বীর বিক্রম'' উপাধিতে ভূষিত করেছেন। তিনি একমাত্র উপজাতী খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা। তিনি পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণ ও উপজাতীয়দের গৌরব তথা বাংলাদেশের গৌরব।

 


Share with :

Facebook Twitter