মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

এক নজরে জেলা পরিষদ

বান্দরবান পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ আইন, ১৯৮৯ (১৯৮৯ সনের ২১ নং আইন) এর মাধ্যমে পরিষদ গঠিত হয়।

 

২৫ জুন, ১৯৮৯ -       

                            বান্দরবান পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদের প্রথম প্রত্যক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠান।

১ জুলাই, ১৯৮৯        -    

                            বান্দরবান পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদের নিকট ক্ষমতা হস্তান্তর

১২ জুলাই, ১৯৮৯        -    

                            আনুষ্ঠানিকভাবে বান্দরবান পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদের কার্যক্রম শু্রু।

 

 

পরিষদের গঠনঃ

চেয়ারম্যান                        -           ০১ জন (উপজাতীয়)

উপজাতীয় সদস্য                -           ১৯ জন

অ-উপজাতীয় সদস্য-           ১১ জন

সর্বমোট                    -        ৩১ জন

 

* উপজাতীয় সদস্যদের বিভাজনঃ

            ১। মারমা ও খেয়াং  -           ১০ জন

            ২। ম্রো                            -           ০৩ জন

            ৩। তঞ্চঙ্গ্যা                      -           ০১ জন

            ৪। বম, লুসাই ও পাংখো       -           ০১ জন

            ৫। চাকমা                        -           ০১ জন   

            ৬। খুমী                           -           ০১ জন

            ৭। চাক                           -           ০১ জন

            ৮। ত্রিপুরা ও উসাই  -           ০১ জন

সর্বমোট                    -        ১৯ জন

 

 

১৯৯৮ সনের ১১ নং আইনের মাধ্যমে বান্দরবন পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ আইনের বিভিন্ন ধারায় বেশ কিছু সংশোধনী আনয়ন করা হয় এবং বান্দরবান পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ নামটি পরিবর্তন করে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ রাখা  হয়। পরিষদে আরো ৩ জন মহিলা সদস্য বৃদ্ধি করা হয় (২ জন উপজাতীয়, ১ জন অ-উপজাতীয়)।

পূর্বতন চেয়ারম্যানগণের তালিকা  ও তাঁদের কার্যকালঃ

 

 

চেয়ারম্যানগণের নাম

কার্যকাল

মমত্মব্য

হতে

পর্যমত্ম

জনাব সাচিং প্রু

০২/৭/১৯৮৯ খ্রিস্টাব্দ

০৩/৩/১৯৯৬ খ্রিস্টাব্দ

নির্বাচিত

জনাব মং ক্য চিং

০৩/৩/১৯৯৬ খ্রিস্টাব্দ

০৫/৮/১৯৯৭ খ্রিস্টাব্দ

মনোনিত

জনাব থোয়াইং চ প্রু মাস্টার

০৫/৮/১৯৯৭ খ্রিস্টাব্দ

১১/৯/২০০০ খ্রিস্টাব্দ

মনোনিত

জনাব  ক্য শৈ হ্লা

১২/৯/২০০০ খ্রিস্টাব্দ

১৬/০২/২০০২ খ্রিস্টাব্দ

মনোনিত

মিসেস মাম্যাচিং

১৬/০২/২০০২ খ্রিস্টাব্দ

১৫/৭/২০০৭ খ্রিস্টাব্দ

মনোনিত

অধ্যাপক থানজামা লুসাই

১৫/৭/২০০৭ খ্রিস্টাব্দ

২৫/৫/২০০৯ খ্রিস্টাব্দ

মনোনিত

জনাব ক্য শৈ হ্লা

২৫/৫/২০০৯ খ্রিস্টাব্দ

অদ্যাবধি

মনোনিত

 

 

                        চেয়ারম্যান        -           জনাব  ক্য শৈ হ্লা

                                                            ফোন: ০৩৬১- ৬২৩৬৭

                        প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা: জনাব মোমিনুর রশিদ আমিন

                                                            ফোন: ০৩৬১-৬২৪৮৭

                        পিএসটু চেয়ারম্যান :

 

                        সদস্যবৃন্দ:

                              জনাব কাজী মো: মুজিবর রহমান ।

                              জনাব ক্য সা প্রম্ন  ।

                              জনাব অং প্রম্ন ম্রো ।

                              জনাব কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যা।

 

বান্দরবান পার্বত্য জেলার পরিচিতি

 

সাধারণ তথ্যাবলীঃ১৯৮১ সালের ১৮ই এপ্রিল বান্দরবান মহকুমা ও লামা মহকুমার সমন্বয়ে বান্দরবান পার্বত্য জেলা গঠিত হয়।

 

(১) প্রশাসনিক ইউনিটঃ

              মোট আয়তন         ঃ      ৪,৪৭৯ বর্গ কিলোমিটার।

              উপজেলা              ঃ      ০৭টি।

              ইউনিয়ন              ঃ      ২৯টি।

              মৌজা                 ঃ      ৯৫টি।

              পৌরসভা              ঃ      ০২টি।

              পুলিশ স্টেশন         ঃ      ০৭টি।

 

 

(২) উপজেলাসমূহের নাম, আয়তন ও জেলা সদর হতে দূরত্বঃ

ক্রমিক নং

উপজেলার নাম

আয়তন

(বর্গ কিলোমিটার)

জেলা সদর হতে দূরত্ব

০১।

বান্দরবান সদর

৫০৪.০

---------

০২।

রোয়াংছড়ি

৪৪৮.৯

২৭ কি.মি.

০৩।

লামা

৬৭৭.৮

৯৫ কি.মি.

০৪।

আলীকদম

৮৮৫.৮

১১২ কি.মি.

০৫।

নাইÿ্যংছড়ি

৪৬৮.৫

১২০ কি.মি.

০৬।

রম্নমা

৬২০.৬

৪৯ কি.মি.

০৭।

থানছি

৮৯৬.৫

৯৫ কি.মি.

 

(৩) জনসংখ্যাঃ

মোট জনসংখ্যা                              ঃ      ৩, ৮৩,০০০ জন(২০১১)

প্রতি বর্গকিলোমিটারে জনসংখ্যা          ঃ      ৮৬ জন (২০১১)

পুরুষ                                          ঃ      ২,০১,০০০ জন (২০১১)

মহিলা                                         ঃ      ১,৮২,০০০ জন (২০১১)

উপজাতি                                      ঃ      ১,১০,৩৩৩ জন (১৯৯১)

অউপজাতি                                   ঃ      ১,২০,২৩৬ জন (১৯৯১)

 

(৪) বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সমূহের প্রাথমিক তথ্যাবলীঃ

 

ক্রমিক নং

ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী

জনসংখ্যা

ধর্ম

০১।

মারমা

৭৫,৮৮০ জন (প্রায়)

বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী

০২।

চাকমা

৬,০০০ জন (প্রায়)

০৩।

তন্চংঙ্গ্যা

৭,০০০ জন (প্রায়)

০৪।

বম

৮,২২৮ জন (প্রায়)

খ্রিস্টান

০৫।

ম্রো

২৮,১০৯ জন (প্রায়)

বৌদ্ধ/খ্রিস্টান/ক্রামা

০৬।

ত্রিপুরা

১০,৪৭৮ জন (প্রায়)

হিন্দু/খ্রিস্টান

০৭।

লুসাই

২৯৩ জন (প্রায়)

খ্রিস্টান

০৮।

অন্যান্য (খেয়াং, খুমী, পাংখো, চাক্)

৫,৮৬৮ জন (প্রায়)

হিন্দু/বৌদ্ধ/খ্রিস্টান

 

 

(৫) প্রধান উৎসব সমুহঃ

          ক) সাংগ্রাই/বিজু/বৈষু/বিষু : বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন আদিবাসীরা যে উৎসবটি উদ্যাপন করেন, তাকে তাঁরা বিভিন্ন নামে অবহিত করেন। এই নামগুলো হলো যথাক্রমে - সাংগ্রাই (মারমা), বিজু (চাক্মা), বৈষু (ত্রিপুরা) এবং বিষু (তনচ্ঙ্গ্যা)।

 

          খ) রাজপূণ্যাহ্: বৎসরের শেষে রাজার কর/খাজনা আদায়ের লÿÿ্য যে উৎসবটি উদ্যাপিত হয় সেটি হল রাজপূণ্যাহ্। প্রজাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত খাজনা হেডম্যানরা উক্ত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে রাজার নিকট প্রদান করেন।

 

          গ) ওয়াগ্যোয়াই পোয়েঃ: বান্দরবানে বসবাসরত প্রধান জনগোষ্ঠী মারমা আদিবাসীরা মূলত এই উৎসবটি পালন করে থাকেন। এটি তাদের একটি ধর্মীয় উৎসব। যার প্রধান আকর্ষন হলো রথযাত্রা।

ঘ) কুমথার চিবাই :নতুন বৎসরকে স্বাগত জানাতে এই উৎসবটির আয়োজন করেন বম আদিবাসীরা। ইংরেজী বৎসরের প্রথম দিন এই উৎসবটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্যাপিত হয়। কুম অর্থ নতুন, থার অর্থ বছর, আর চিবাই অর্থ শুভেচ্ছা। বম ভাষায় কুমথার চিবাই অর্থ নতুন বছরের শুভেচ্ছা।

 

          ঙ) চাংক্রাং চিং : এছাড়া ম্রো আদিবাসীদের গো হত্যা উৎসবও আকর্ষনীয়। এই উৎসবটি চাংক্রাংচিং নামে পরিচিত।

শিক্ষা ও সংস্কৃতিঃ

 

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানঃ

            সরকারী কলেজ                             -           ০২ টি    

বে-সরকারী কলেজ                         -           ০৪ টি    

সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়                      -           ০৮ টি    

বে-সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়                  -           ১০ টি     

নিম্ন-মাধ্যমিক বিদ্যালয়                    -           ২৬ টি    

 

}

প্রাথমিক বিদ্যালয়                           -           ৩৬৯ টি  

(1)   সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়     -          ২১৯ টি   

(২) বে-সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় -           ১৫০ টি

উপানুষ্ঠানিক শিক্ষাা প্রকল্প                -           ০২ টি                

উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কেন্দ্র                   -           ৪৫ টি    

মসজিদভিত্তিক গণশিক্ষা কার্যক্রম        -           ৬০ টি    

ভোকেশনাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট            -           ০১ টি     

কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র                    -           ০১ টি     

যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র                           -           ০১ টি     

সিনিয়র মাদ্রাসা                              -           ০২ টি    

জুনিয়র মাদ্রাসা                              -           ০৪ টি    

উপজাতীয় আবাসিক বিদ্যালয়             -           ০৩ টি    

পাবলিক লাইব্রেরী                           -           ০৭ টি    

শিÿার হার                                -           ৩৪ %

         

 

          ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানঃ 

                        মসজিদ   -           ২৪৪ টি   

                        মন্দির     -           ২৬ টি    

                        গীর্জা      -           ৮৯ টি    

                        বৌদ্ধ মন্দির-         ১৫৬ টি  

 

 

 

স্থানীয় পত্র-পত্রিকাঃ   ০৬টি।

১।         দৈনিক নতুন বাংলাদেশ

২।         মাসিক চিম্বুক

৩।         দৈনিক সচিত্র মৈত্রী

৪।         দৈনিক সাঙ্গু

৫।         মাসিক নীলাচল এবং

৬।         সাপ্তাহিক বান্দরবান।

 

আবাদী জমি                                    -         ২,৪৯,৯৪৮ একর / ৪৩,৪৩৩ হেক্টর।

অনাবাদী জমি                                  -         ৯৫,২৫৪ একর

এগ্রো সার্ভিস সেন্টার                          -         ০২টি

হর্টিকালচার সেন্টার                            -         ০২টি

নার্সারী                                          -         ০১টি

মৎস্য খামার                                   -         ০২টি

গয়াল প্রজনন খামার                           -         ০১টি

তুলা গবেষণা কেন্দ্র                            -         ০১টি

মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট           -         ০১টি

ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কেন্দ্র                      -         ০১টি

 

শিল্প কারখানাঃ  ০৫টি।

১।         সাত্তার ম্যাচ ওয়ার্কস, আজিজনগর, লামা।

২।         আজিজউদ্দিন ইন্ডাস্ট্রিজ, আজিজনগর, লামা।

৩।         রয়েল টেক্সটাইল মিলস্

৪।         বাংলাদেশ বন শিল্প উন্নয়ন সংস্থা এবং

৫।         লুম্বিনী লিঃ, মেঘলা, বান্দরবান।

 

পর্যটন শিল্পঃ

 

ক্রমিক নং

পর্যটন এলাকার নাম

অবস্থান

০১

মেঘলা পর্যটন কমপেস্নক্স

বান্দরবান সদর

০২

প্রামিত্মক লেক

বান্দরবান সদর

০৩

শৈল প্রপাত

বান্দরবান সদর

০৪

চিম্বুক

রুমা

০৫

রুমা জল প্রপাত (রিস্বং সং)

ওরুমা

০৬

বগালেক

রুমা

০৭

কেওক্রাডং

রুমা

০৮

তা জিং ডং

রুমা

০৯

মিরিঞ্জা

লামা

১০

নীলাচল

বান্দরবান সদর

১১

নীলগিরি

থানছি